বুধবার, ৩০ সেপ্টেম্বর ২০২০, ০৮:০৫ পূর্বাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম :
তিতাসের চার কর্মকর্তাসহ ৮ জনের জামিন: মসজিদে বিস্ফোরণ বিক্ষোভ সৌদি এয়ারলাইন্সের অফিসের সামনে দেশে করোনার র‌্যাপিড টেস্টিংয়ের অনুমতি দিয়েছে সরকার ক্ষমতার অপব্যবহার করছেন ট্রাম্প: বাইডেন শাহিন আফ্রিদির বিশ্বরেকর্ড ছয় ব্যাটসম্যানকে বোল্ড করে ফের কোভিডে রূপ দেয়া হচ্ছে নন-কোভিড হাসপাতালগুলোকে: স্বাস্থ্য সচিব ঢাবি শিক্ষার্থী বললেন মজনুই ধর্ষক করোনায় শনাক্ত সাড়ে ৩ লাখ ছাড়ালো, মৃত্যু ৪০ দুদক স্বাস্থ্য অধিদপ্তরে তৃতীয়-চতুর্থ শ্রেণির ৪৪ কোটিপতির সন্ধান পেয়েছে ছেড়ে দেয়া হয়েছে নুরকে প্রধানমন্ত্রীর করোনার দ্বিতীয় ধাপের সংক্রমণ রোধে প্রস্তুতির নির্দেশ দিয়েছেন গ্রেফতার ভিপি নুর নোয়াখালীতে স্কুল ছাত্রীর আত্মহত্যা ১১১ তলা ভবন নির্মাণ হচ্ছে ঢাকায় দেশে করোনা সংক্রমণ রোধে দ্বিতীয় দফা পরীক্ষা বাড়ানোর পরামর্শ লক্ষ্মীপুরের রামগঞ্জ ও চন্দ্রগঞ্জে ইউপি উপ-নির্বাচন ও বর্ধিত সভাকে কেন্দ্র করে আ’লীগের দু-গ্রুপের সংঘর্ষ, আহত-১০ খালেদাকে কারাগারে পাঠানোর দাবি উঠতে পারে বিএনপি নেতাদের মন্তব্যে: তথ্যমন্ত্রী গত ২৪ ঘণ্টায় করোনায় আরও ২৬ জনের মৃত্যু, কমেছে আক্রান্ত আর্সেনালের টানা দ্বিতীয় জয় করোনা পরিস্থিতি শীতে খারাপ হতে পারে: প্রধানমন্ত্রী

করোনা: সোয়া লাখ কোটি ডলার ক্ষতি ছাড়াবে বিশ্ব পর্যটন খাতে

মুক্তকণ্ঠ২৪ ডেস্ক:

চলতি বছর বিশ্ব পর্যটন খাতে করোনা মহামারির কারণে ক্ষতি ছাড়াবে সোয়া লাখ কোটি ডলার। যা বৈশ্বিক জিডিপির প্রায় তিন শতাংশ। পাশাপাশি পুরো বিশ্বে এ খাতের ১০ কোটি মানুষের কাজ হারানোর আশঙ্কা রয়েছে। তবে দেশগুলোর অভ্যন্তরীণ পর্যটনকে সচল করা গেলে এ ক্ষতি অনেকাংশে কাটিয়ে উঠা সম্ভব।

জাতিসংঘের বিশ্ব পর্যটন সংস্থার এক প্রতিবেদনে উঠে এসেছে এসব তথ্য।

সম্প্রতি জাতিসংঘের বিশ্ব পর্যটন সংস্থার এক প্রতিবেদন বলছে, মহামারির প্রভাবে বিশ্ব পর্যটন খাতে ক্ষতি ৯১০ বিলিয়ন থেকে ১ দশমিক ২ ট্রিলিয়ন ডলার ছাড়িয়ে যেতে পারে। এতে বৈশ্বিক জিডিপি কমবে দেড় থেকে ২.৮ শতাংশ। একই কারণে এ খাতের ১০ কোটি মানুষের কর্মসংস্থান ঝুঁকিতে রয়েছে। করোনা উন্নত দেশের পর্যটন খাতে নেতিবাচক প্রভাব ফেললেও উন্নয়নশীল দেশগুলোর জন্য ব্যাপক ক্ষতির কারণ হয়ে দাঁড়িয়েছে।

ক্ষতি কাটিয়ে উঠতে পর্যটন খাতের উন্নয়নে নানা দিক নির্দেশনা দিচ্ছে সংস্থাটি। যেহেতু করোনার কারণে বিদেশি পর্যটক আশানুরূপ পাওয়া যাবে না, তাই দেশগুলোর অভ্যন্তরীণ পর্যটনের চাহিদা বাড়ানোর পরামর্শ দিচ্ছে ইউএনডব্লিউটিও। গ্রামীণ পরিবেশ বা প্রকৃতি-ভিত্তিক পর্যটনের জন্য স্থানীয় কেন্দ্রগুলোর অবকাঠামো উন্নয়নে বিনিয়োগ বাড়ানোর কথা বলছে সংস্থাটি।

করোনার প্রকোপ কিছুটা কমায় এরইমধ্যে বিভিন্ন দেশে খুলে দেয়া হয়েছে বেশিরভাগ পর্যটনকেন্দ্র। তবে সেজন্য পর্যটকদের মানতে হবে স্বাস্থ্যবিধিসহ অন্যান্য নির্দেশনা।

প্রসঙ্গত, চীনের উহান থেকে ছড়িয়ে পড়া করোনাভাইরাসের কারণে বছরের প্রথম থেকেই বিপর্যস্ত পুরো বিশ্ব। ব্যাপকভাবে ব্যাহত আন্তর্জাতিক সব ধরনের যোগাযোগ ব্যবস্থা ও ব্যবসা-বাণিজ্য। বেশিরভাগ দেশের অভ্যন্তরীণ লকডাউন ও নানা নিষেধাজ্ঞায় বেশ লম্বা সময় ধরেই বন্ধ ছিল আকাশ, নৌ, রেল এবং স্থলপথে চলাচল। এতে মারাত্মকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত পর্যটন খাত। যেখানে বৈশ্বিক বাণিজ্যে এ খাতের অবদান ৭ শতাংশের বেশি।

 

 

 

মুক্তকন্ঠ২৪

নিয়মিত সকল সংবাদ পেতে মুক্তকন্ঠ২৪.কম এর ফেইসবুকে যুক্ত থাকুন।

শেয়ার করুন


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *