শনিবার, ০৫ ডিসেম্বর ২০২০, ০২:৪১ অপরাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম :
উর্গবাদী সংগঠন দেশে শান্তি বিনষ্টের চেষ্টা করছে: ওবায়দুল কাদের ৮০ হাজার কোটি টাকা খেলাপি শীর্ষ ২৫ ব্যাংকে: বাংলাদেশ ব্যাংক অর্থ পাচারকারীদের আইনের আওতায় আনতে হবে: হাইকোর্ট যুক্তরাষ্ট্র ইরাকে থেকে কূটনীতিকের সংখ্যা কমাল  দেশ চলছে শতভাগ ব্যক্তিতন্ত্রের ওপর: গয়েশ্বর চন্দ্র ‘টেক্সট ফর ইউ’ শিরোনামে হলিউড সিনেমায় প্রিয়াঙ্কা ১১ ডিসেম্বর মুক্তি পাচ্ছে ‘বিশ্বসুন্দরী’  প্রভাস তিন সিনেমায় নিচ্ছেন ৩০০ কোটি! রাজধানীতে ভিপি নূরের নেতৃত্বে মশাল মিছিল বার্সা উড়ছে মেসিকে ছাড়াই  প্রথম জয় বেক্সিমকো ঢাকার  নিরাময়ের বদলে মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ কেন্দ্রগুলোতে চলে নির্যাতন পৃথিবীর মধ্যে সর্বোচ্চ খরচ বাংলাদেশের প্রতি কি.মি. রাস্তা নির্মাণে সিলেট এমসি কলেজে গণধর্ষণ: ৮ জনের বিরুদ্ধে চার্জশিট বিনামূল্যের পাঠ্যবই আটকা যাচ্ছে তিন সংকটে শনিবার থেকে অ্যান্টিজেন টেস্ট শুরু হচ্ছে করোনা: বিশ্বে মৃতের সংখ্যা ছাড়িয়েছে ১৪ লাখ ৯৯ হাজার জলবায়ু পরিবর্তন ও মানসিক স্বাস্থ্য সমস্যা মোকাবিলায় কর্ম-পরিকল্পনার আহ্বান সায়মা ওয়াজেদের বিশ্ব এখন করোনার ভ্যাকসিন যুগে  মানসম্মত জীবনের সব আয়োজনে আধুনিক শহর এখন ভাসানচর

চার শিশুর বিরুদ্ধে করা ধর্ষণ মামলা স্থগিত করেছে হাইকোর্ট

বরিশাল প্রতিনিধি:

বরিশালে বাকেরগঞ্জে চার শিশুর বিরুদ্ধে ছয় বছরের শিশুকে ধর্ষণের অভিযোগে করা মামলার কার্যক্রম স্থগিত করেছে হাইকোর্ট। তাদের পরিবারকে সব ধরণের নিরাপত্তা দিতেও নির্দেশ দেয়া হয়েছে। বাকেরগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তাসহ (ওসি) কেন ব্যবস্থা নেয়া হবে না সংশ্লিষ্টদের বিরুদ্ধে, এই মর্মে রুলও জারি করা হয়েছে।

৬ অক্টোবর বাকেরগঞ্জ থানায় ছয় বছরের এক শিশুকে ধর্ষণ মামলার আসামির করা হয় চার শিশুকে যাদের প্রত্যেকের বয়স ১০ বছরের নিচে। পরে, তাদের গ্রেপ্তারও করে পুলিশ। এরপর বরিশালের সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেস্ট চার শিশুকে জামিন না দিয়ে যশোর কিশোর উন্নয়ন কেন্দ্রে পাঠান।

এই খবর গণমাধ্যমে প্রচারিত হলে বৃহস্পতিবার রাতে তাৎক্ষণিক হাইকোর্টের একটি বেঞ্চ ওই চার শিশুকে জামিন দেয়। একইসাথে বরিশালের সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট, বাকেরগঞ্জ থানার ওসি এবং চার শিশু ও তাদের অভিভাবকদের হাইকোর্টে হাজির হতে বলা হয়।

রবিবার বিচারপতি মোহাম্মদ মজিবুর রহমান মিয়া ও বিচারপতি মোহাম্মদ মহিউদ্দিন শামীমের বেঞ্চ আলাদাভাবে সব পক্ষের বক্তব্য শোনেন। এ সময় বিচারপতিদের কোনো প্রশ্নের সঠিক জবাব দিতে পারেননি বাকেরগঞ্জ থানার ওসি।

শুনানিতে জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেটকে চরম তিরস্কার করা হয়। তাকে সিলমারা বিচারক বলে মন্তব্য করে হাইকোর্ট বেঞ্চ। এ সময় নিঃশর্ত ক্ষমা প্রার্থনা করেন তিনি।

বাকেরগঞ্জ থানার ওসি, শিশু বিষয়ক পুলিশ কর্মকতা ও বিচারক কেউ চার শিশু ও ধর্ষণে অভিযুক্ত শিশুকে দেখেননি। এই মামলায় শিশু আইনের কোনও ধারার প্রয়োগও হয়নি। পরে আদেশে মামলার কার্যক্রম স্থগিত করে রুল জারি করে হাইকোর্ট বেঞ্চ।

চার শিশুর পরিবারের সদস্যরা আদালতের কাছে ন্যায় বিচার প্রার্থনা করেছেন। হাইকোর্ট আগামী ২২ নভেম্বর  আলোচিত এ ঘটনায় মামলার পরবর্তী শুনানির দিন ধার্য করেছে।

 

 

 

 

 

মুক্তকন্ঠ২৪

নিয়মিত সকল সংবাদ পেতে মুক্তকন্ঠ২৪.কম এর ফেইসবুকে যুক্ত থাকুন।

শেয়ার করুন


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *