বুধবার, ২০ জানুয়ারী ২০২১, ০৮:৪১ পূর্বাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম :
প্রযুক্তি উন্নয়নের হাতিয়ার, তাই অনুকরণের পরিবর্তে উদ্ভাবনে জোর দিতে হবে: রাষ্ট্রপতি চতুর্থ শিল্প বিপ্লবে বাংলাদেশ নেতৃত্ব দেবে: সজীব ওয়াজেদ সুইস রাষ্ট্রদূতকে বাংলাদেশে আরও বিনিয়োগ বাড়ানোর আহ্বান প্রধানমন্ত্রীর উর্গবাদী সংগঠন দেশে শান্তি বিনষ্টের চেষ্টা করছে: ওবায়দুল কাদের ৮০ হাজার কোটি টাকা খেলাপি শীর্ষ ২৫ ব্যাংকে: বাংলাদেশ ব্যাংক অর্থ পাচারকারীদের আইনের আওতায় আনতে হবে: হাইকোর্ট যুক্তরাষ্ট্র ইরাকে থেকে কূটনীতিকের সংখ্যা কমাল  দেশ চলছে শতভাগ ব্যক্তিতন্ত্রের ওপর: গয়েশ্বর চন্দ্র ‘টেক্সট ফর ইউ’ শিরোনামে হলিউড সিনেমায় প্রিয়াঙ্কা ১১ ডিসেম্বর মুক্তি পাচ্ছে ‘বিশ্বসুন্দরী’  প্রভাস তিন সিনেমায় নিচ্ছেন ৩০০ কোটি! রাজধানীতে ভিপি নূরের নেতৃত্বে মশাল মিছিল বার্সা উড়ছে মেসিকে ছাড়াই  প্রথম জয় বেক্সিমকো ঢাকার  নিরাময়ের বদলে মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ কেন্দ্রগুলোতে চলে নির্যাতন পৃথিবীর মধ্যে সর্বোচ্চ খরচ বাংলাদেশের প্রতি কি.মি. রাস্তা নির্মাণে সিলেট এমসি কলেজে গণধর্ষণ: ৮ জনের বিরুদ্ধে চার্জশিট বিনামূল্যের পাঠ্যবই আটকা যাচ্ছে তিন সংকটে শনিবার থেকে অ্যান্টিজেন টেস্ট শুরু হচ্ছে করোনা: বিশ্বে মৃতের সংখ্যা ছাড়িয়েছে ১৪ লাখ ৯৯ হাজার

ঝুঁকিতে ১০০ কোটি অ্যান্ড্রয়েড স্মার্টফোন

মুক্তকন্ঠ২৪ ডেস্ক:
হ্যাক হওয়ার ঝুঁকিতে রয়েছে ১০০ কোটির বেশি অ্যান্ড্রয়েড চালিত যন্ত্র। কারণ, সেগুলো এখন আর নিরাপত্তা হালনাগাদে সুরক্ষিত নয় বলে জানিয়েছে হুইচ নামের ব্রিটিশ পর্যবেক্ষণ সংস্থা। এর প্রভাবে বিশ্বব্যাপী ব্যবহারকারীরা তথ্য চুরি, র‍্যানসমওয়্যারসহ অন্যান্য ম্যালওয়্যারে (ক্ষতিকর সফটওয়্যার) আক্রান্ত হওয়ার ঝুঁকিতে থাকবে। বিশেষ করে ২০১২ সাল কিংবা তার আগে বাজারে আসা যন্ত্রগুলো নিয়ে দুশ্চিন্তা বেশি। আর এ নিয়ে গুগলের বক্তব্যে সন্তুষ্ট নয় বলে উল্লেখ করেছে হুইচ।

গুগলের নিজস্ব পরিসংখ্যান বলছে, বিশ্বব্যাপী ৪২ দশমিক ১ শতাংশ অ্যান্ড্রয়েড ব্যবহারকারী অ্যান্ড্রয়েড ৬.০ (মার্শমেলো) বা পূর্ববর্তী সংস্করণ ব্যবহার করে। আর অ্যান্ড্রয়েড নিরাপত্তা বুলেটিন অনুযায়ী, ২০১৯ সালে অ্যান্ড্রয়েড ৭.০-এর আগের সংস্করণগুলোর জন্য কোনো নিরাপত্তা হালনাগাদ ছাড়েনি।

এই তথ্য দেখে হুইচ বলছে, প্রতি পাঁচ অ্যান্ড্রয়েডচালিত যন্ত্রের মধ্যে দুটি এখন আর নিরাপত্তা হালনাগাদ পাচ্ছে না। পাঁচটি স্মার্টফোনে পরীক্ষা চালিয়েছে তারা—মটোরোলা এক্স, স্যামসাং গ্যালাক্সি এ৫, সনি এক্সপেরিয়া জেড২, এলজি/গুগল নেক্সাস ৫ এবং স্যামসাং গ্যালাক্সি এস৬। এরপর অ্যান্টিভাইরাস নির্মাতা প্রতিষ্ঠান এভি কমপ্যারাটিভসকে স্মার্টফোনগুলো ম্যালওয়্যারে আক্রান্ত করার অনুরোধ জানায়। দুর্ভাগ্যজনক ব্যাপার, সব কটিই তারা আক্রান্ত করতে সক্ষম হয়। কয়েকটিতে তো কয়েকবার করে সংক্রমণ করে দেখিয়েছে তারা।

পরীক্ষার ফল গুগলের কাছে পাঠিয়েছে হুইচ। তবে যে ব্যবহারকারীরা নিরাপত্তা হালনাগাদের বাইরে রয়ে গেছেন, তাঁদের নিরাপত্তার ব্যাপারে করণীয় সম্পর্কে গুগল পরিষ্কার করে কিছু জানাতে পারেনি। গুগল ও অন্য প্রতিষ্ঠানগুলোকে নিরাপত্তা হালনাগাদ বিষয়ে আরও বেশি স্বচ্ছতার আহ্বান জানিয়েছে হুইচ।

সূত্র: বিবিসি

মুক্তকন্ঠ২৪ কে

নিয়মিত সকল সংবাদ পেতে মুক্তকন্ঠ২৪.কম এর ফেইসবুকে যুক্ত থাকুন।

শেয়ার করুন


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *