রবিবার, ০১ অগাস্ট ২০২১, ০৩:৪২ অপরাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম :
কারখানা খোলায়  সংক্রমণ আরও বাড়ার শঙ্কা স্বাস্থ্যমন্ত্রীর এডিস নিধনে ডিএসসিসির অভিযান, জরিমানা সরকার কৃষকদের লাভবান করতে ভর্তুকি দিচ্ছে: কৃষিমন্ত্রী সবার স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের প্রশংসা করা দরকার: মোমেন সপ্তাহে কোটির বেশি টিকা দেওয়ার টার্গেট গার্মেন্টসে স্বাস্থ্যবিধি মেনে কাজ হওয়ার আশাবাদ স্বাস্থ্যমন্ত্রীর সাংসদ আলী আশরাফের মৃত্যুতে শোক প্রধানমন্ত্রীর সাংসদ আলী আশরাফের মৃত্যুতে শোক রাষ্ট্রপতির অক্সফোর্ড-অ্যাস্ট্রাজেনেকার দ্বিতীয় ডোজ শুরু কাল–পরশু অক্সফোর্ডের টিকার দ্বিতীয় চালান আসলো জাপান থেকে অস্ট্রিয়ায় নিযুক্ত বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত এপিজির সভাপতি বিদেশিদের শেয়ারবাজারে উৎসাহিত করতে ’রোড শো’ অনুমোদনহীন আইপি টিভির হলে ব্যবস্থা: তথ্যমন্ত্রী রোহিঙ্গাদের পাসপোর্ট দেওয়ার সিদ্ধান্ত হয়নি: পররাষ্ট্রমন্ত্রী লক্ষ্মীপুরে জেলা শিক্ষা অফিসারের সচেতনতা ক্যাম্পেইন, ৫০০০ মাস্ক বিতরণ শ্রমিকদের এখন কারখানায় যোগ দেওয়া বাধ্যতামূলক নয় লকডাউন চলমান রাখার সুপারিশ স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের হেলেনা জাহাঙ্গীরের বিরুদ্ধে একাধিক মামলা হচ্ছে তৃতীয় ধাপে ভারত থেকে আসলো ২০০ মে. টন অক্সিজেন উপনির্বাচন: সিলেট-৩ আসনে ভোট  ৪ সেপ্টেম্বর

নারী উদ্যোক্তাদের প্রতিষ্ঠানেই হচ্ছে বেশি কর্মসংস্থান: গবেষণা

মুক্তকণ্ঠ২৪ ডেস্ক:

 

বর্তমানে কর্মসংস্থানের বড় ক্ষেত্র হয়ে উঠেছে দেশের এসএমই খাতের প্রতিষ্ঠানগুলো। যদিও শুরুতে ব্যবসা করার জন্য এসব প্রতিষ্ঠানের মধ্যে মাত্র দেড় শতাংশ প্রতিষ্ঠান ব্যাংক ও আর্থিক প্রতিষ্ঠানের কাছ থেকে ঋণসহায়তা পেয়েছে। গত পাঁচ বছরে গড়ে ১০৫ দশমিক ৭ শতাংশের বেশি নতুন চাকরির সুযোগ তৈরি করেছে ক্ষুদ্র ও মাঝারি শিল্পপ্রতিষ্ঠানগুলো (এসএমই)। এর মধ্যে সবচেয়ে বেশি কর্মসংস্থান হয়েছে নারী উদ্যোক্তাদের প্রতিষ্ঠানে। এই হার প্রায় ১৪৬ দশমিক ২ শতাংশ। এসএমই খাতের উদ্যোক্তারা প্রথমে পরিবারের সদস্যদের নিয়ে ব্যবসা শুরু করলেও পরে প্রাতিষ্ঠানিকভাবে নতুন কর্মী যুক্ত হয়েছে।

 

আর্থিক প্রতিষ্ঠান আইডিএলসি ফাইন্যান্স ও গবেষণা সংস্থা পলিসি রিসার্চ ইনস্টিটিউটের (পিআরআই) এক যৌথ গবেষণায় এসব তথ্য উঠে এসেছে।

 

‘কর্মসংস্থান তৈরিতে ক্ষুদ্র ও মাঝারি ব্যবসায়ীদের ভূমিকা’ শীর্ষক এ গবেষণা করা হয় আইডিএলসি ফাইন্যান্সের ৭৮২ এসএমই উদ্যোক্তার ওপর। পিআরআইয়ের নির্বাহী পরিচালক আহসান এইচ মনসুর ও পরিচালক বজলুল হক খন্দকার এই গবেষণার সঙ্গে সরাসরি যুক্ত ছিলেন।

 

গতকাল মঙ্গলবার সকালে অনলাইনে আয়োজিত এক অনুষ্ঠানে গবেষণার ফলাফল প্রকাশ করা হয়।

 

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অর্থনীতি বিভাগের অধ্যাপক সায়েমা হকের সঞ্চালনায় আয়োজিত অনুষ্ঠানে গবেষণার ফলাফল তুলে ধরেন বজলুল হক খন্দকার।

 

এ সময় তিনি বলেন, গবেষণা তথ্যের পুরোটাই করোনার আগের অবস্থার চিত্র। করোনার মধ্যে কর্মসংস্থানে নিশ্চয় বড় ধরনের নেতিবাচক প্রভাব পড়েছে।

 

গবেষণার ফলাফলে বলা হয়, এসএমই খাতের মধ্যে সবচেয়ে বেশি কর্মসংস্থান হয়েছে সেবা খাতসংশ্লিষ্ট প্রতিষ্ঠানে। এই হার ১৭৪ শতাংশ। এ ছাড়া শিল্পে ১৩১ শতাংশ, ব্যবসাপ্রতিষ্ঠানে ৭৪ শতাংশ, কৃষিভিত্তিক প্রতিষ্ঠানে ৩০ শতাংশ হারে কর্মসংস্থান হয়েছে। এর মধ্যে বেতনভুক্ত কর্মচারীর সংখ্যা বেড়েছে ১৩৪ শতাংশ হারে, দৈনিকভিত্তিক কর্মসংস্থান হয়েছে ৯৪ শতাংশ হারে ও পারিবারিক শ্রমের কর্মসংস্থান হয়েছে ৪৬ শতাংশ। বজলুল হক খন্দকার বলেন, এসব প্রতিষ্ঠানে গড় বিনিয়োগ ছিল ৩ কোটি টাকার মতো। আর বার্ষিক টার্নওভারের পরিমাণ প্রায় ৬ কোটি টাকা।

 

অনুষ্ঠানে আইডিএলসির ব্যবস্থাপনা পরিচালক আরিফ খান বলেন, ‘আইডিএলসি একসময় শুধু করপোরেট ঋণ দিত। সেখান থেকে পরিকল্পনা করে ছোট আকারে এসএমই ঋণ বিতরণ শুরু করলাম। তখন আমরা বলতাম “স্মল ইজ বিউটিফুল”। ছোটদের ঋণ দিয়ে ভালো ফলও পেলাম আমরা।’

 

আরিফ খান আরও বলেন, ‘বর্তমানে আমাদের প্রতিষ্ঠানের বিতরণ করা ঋণের ৪৬ শতাংশই এসএমই খাতে। অথচ পুরো খেলাপি ঋণের হার ৩ শতাংশের নিচে। আর নারী উদ্যোক্তাদের ঋণ ৩৫০ কোটি টাকা। খেলাপির হার ১ শতাংশের নিচে। ব্যাংক থেকে ঋণ নিয়ে যারা টাকা ফেরত দিচ্ছেন না, তারা আবার আদালতে যাচ্ছেন। তাদের মধ্যে এসএমই খাতের কেউ নেই।’

 

আরিফ খান বলেন, বড় করপোরেটদের সহজেই ঋণ দেয়া যায়। এসএমই খাতে ঋণ দিতে অনেক কাজ করতে হয়। ব্যাংক ও আর্থিক প্রতিষ্ঠানের শীর্ষ পর্যায়ের সদিচ্ছা ছাড়া এসএমই খাতে ঋণ বাড়ানো যায় না।

 

অনুষ্ঠানে পিআরআইয়ের নির্বাহী পরিচালক আহসান এইচ মনসুর বলেন, ‘আমাদের দেশের অর্থনীতিতে বড় প্রবৃদ্ধি নিয়ামক এমএসএমই খাত। কোরিয়া, জাপান, চীনেও তা–ই। কিন্তু এসএমই খাতের উদ্যোক্তাদের লবিং জোরালো না, এ জন্য তারা উপেক্ষিত। এই খাতে ঋণ বাড়াতে হবে, অন্য সব সুবিধা নিশ্চিত করতে হবে। তাহলে এই খাতের উদ্যোক্তা, ব্যাংক ও আর্থিক প্রতিষ্ঠান এবং সরকার উপকৃত হবে।’

 

 

 

মুক্তকন্ঠ২৪

নিয়মিত সকল সংবাদ পেতে মুক্তকন্ঠ২৪.কম এর ফেইসবুকে যুক্ত থাকুন

শেয়ার করুন


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *