মঙ্গলবার, ১৯ জানুয়ারী ২০২১, ০৫:৩৪ অপরাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম :
প্রযুক্তি উন্নয়নের হাতিয়ার, তাই অনুকরণের পরিবর্তে উদ্ভাবনে জোর দিতে হবে: রাষ্ট্রপতি চতুর্থ শিল্প বিপ্লবে বাংলাদেশ নেতৃত্ব দেবে: সজীব ওয়াজেদ সুইস রাষ্ট্রদূতকে বাংলাদেশে আরও বিনিয়োগ বাড়ানোর আহ্বান প্রধানমন্ত্রীর উর্গবাদী সংগঠন দেশে শান্তি বিনষ্টের চেষ্টা করছে: ওবায়দুল কাদের ৮০ হাজার কোটি টাকা খেলাপি শীর্ষ ২৫ ব্যাংকে: বাংলাদেশ ব্যাংক অর্থ পাচারকারীদের আইনের আওতায় আনতে হবে: হাইকোর্ট যুক্তরাষ্ট্র ইরাকে থেকে কূটনীতিকের সংখ্যা কমাল  দেশ চলছে শতভাগ ব্যক্তিতন্ত্রের ওপর: গয়েশ্বর চন্দ্র ‘টেক্সট ফর ইউ’ শিরোনামে হলিউড সিনেমায় প্রিয়াঙ্কা ১১ ডিসেম্বর মুক্তি পাচ্ছে ‘বিশ্বসুন্দরী’  প্রভাস তিন সিনেমায় নিচ্ছেন ৩০০ কোটি! রাজধানীতে ভিপি নূরের নেতৃত্বে মশাল মিছিল বার্সা উড়ছে মেসিকে ছাড়াই  প্রথম জয় বেক্সিমকো ঢাকার  নিরাময়ের বদলে মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ কেন্দ্রগুলোতে চলে নির্যাতন পৃথিবীর মধ্যে সর্বোচ্চ খরচ বাংলাদেশের প্রতি কি.মি. রাস্তা নির্মাণে সিলেট এমসি কলেজে গণধর্ষণ: ৮ জনের বিরুদ্ধে চার্জশিট বিনামূল্যের পাঠ্যবই আটকা যাচ্ছে তিন সংকটে শনিবার থেকে অ্যান্টিজেন টেস্ট শুরু হচ্ছে করোনা: বিশ্বে মৃতের সংখ্যা ছাড়িয়েছে ১৪ লাখ ৯৯ হাজার

ফরিদপুর জেনারেল হাসপাতালকে করোনা চিকিৎসার জন্য ঘোষণা দেয়ায় শহরবাসীর মাঝে ক্ষোভ ও আতঙ্ক

ফরিদপুর প্রতিনিধি:

ফরিদপুরে করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত রোগীদের চিকিৎসার জন্য শহরে অবস্থিত জেনারেল হাসপাতালকে বেছে নেয়ায় জনমনে তীব্র ক্ষোভ ও অসন্তোষের সৃষ্টি হয়েছে। জনবহুল এলাকায় করোনার রোগীদের চিকিৎসা দেয়ায় আশেপাশের ঘনবসতিপূর্ণ এলাকায় তা ছড়িয়ে পড়ার আশংকা করছে স্থানীয়রা। পাশাপাশি এ হাসপাতালটিতে নেই কোন যন্ত্রপাতি ও অন্যান্য সুযোগ সুবিধা। ফলে করোনায় আক্রান্ত রোগীরা এখানে তেমন কোন চিকিৎসা সেবা পাবেন না বলে মনে করছেন সংশ্লিষ্টরা।

শহরবাসীর মনে প্রশ্ন উঠেছে, আধুনিক যন্ত্রপাতি সম্বলিত ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালটিকে কেন বেছে নেয়া হলোনা। যেখানে যন্ত্রপাতিসহ লোকবল সবাই রয়েছে।

জানা গেছে, স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের পরিচালক (ক্লিনিক ও হাসপাতাল) আমিনুল হাসান ও ঢাকা বিভাগীয় পরিচালক শেখ হাসান ইমামের মৌখিক নির্দেশে ফরিদপুর জেনারেল হাসপাতালটিকে করোনা রোগীদের চিকিৎসার জন্য প্রস্তুত করা হয়েছে। যেখানে শুধুমাত্র বেড ছাড়া নেই অন্য কোন সুবিধা।

রোগীদের পরীক্ষার জন্য ফরিদপুর মেডিকেল কলেজকে নির্ধারিত করা হয়েছে। আর ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে রোগীদের জন্য আইসিইউ প্রস্তুত করা হয়েছে। করোনা রোগীদের জন্য তিনটি স্থানে পৃথক ভাবে পরীক্ষা ও চিকিৎসার ব্যবস্থা করা হয়েছে। ফলে রোগীদের চিকিৎসার বদলে ভোগান্তি বাড়বে বলে মনে করা হচ্ছে।

এদিকে, ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালটি সাড়ে ৭শ বেডে রুপান্তরিত। সেখানে আধুনিক সব সুযোগ সুবিধা এবং লোকবল রয়েছে। এছাড়া চিকিৎসকদের থাকার জন্য পর্যাপ্ত রুম রয়েছে। কিন্তু জেনারেল হাসপাতালে এর কোনটিই নেই।

নামপ্রকাশে অনিচ্ছুক জেনারেল হাসপাতালের এক কর্মকর্তা জানান, জেনারেল হাসপাতালে তেমন কোন সুযোগ সুবিধা নেই। নেই প্রয়োজনীয় লোকবল। করোনা রোগীদের চিকিৎসার জন্য প্রায় ৬০ জনের একটি টিম প্রস্তুত করার কথা বলা হয়েছে। যারা হাসপাতালে থেকেই রোগীদের চিকিৎসা সেবা দেবেন। এই হাসপাতালে এত জনবল নেই। তাছাড়া চিকিৎসক ও তাদের সহযোগীদের থাকার জন্য রুম নেই। নেই আধুনিক কোন যন্ত্রপাতি। ফলে রোগীদের চিকিৎসা সেবা নিয়ে আমরা চিন্তিত রয়েছি।

ফরিদপুরের সিভিল সার্জন ডা. সিদ্দিকুর রহমান জানান, স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের মৌখিক নির্দেশে আমরা করোনা রোগীদের জন্য হাসপাতালটিকে প্রস্তুত করেছি। তবে এ হাসপাতালে জনবল ও আধুনিক যন্ত্রপাতি না থাকায় চিকিৎসা সেবা কতটা দিতে পারবো তা বলতে পারছিনা।

 

 

 

মুক্তকন্ঠ২৪

নিয়মিত সকল সংবাদ পেতে মুক্তকন্ঠ২৪.কম এর ফেইসবুকে যুক্ত থাকুন।

 

শেয়ার করুন


আপনার মতামত লিখুন :

One response to “ফরিদপুর জেনারেল হাসপাতালকে করোনা চিকিৎসার জন্য ঘোষণা দেয়ায় শহরবাসীর মাঝে ক্ষোভ ও আতঙ্ক”

  1. তৌহিদ খান says:

    ফমেক কে তৈরী করার ব্যবস্থা গ্রহণ করার জন্য অনুরোধ করছি ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *