বুধবার, ২০ জানুয়ারী ২০২১, ০৮:৩৩ পূর্বাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম :
প্রযুক্তি উন্নয়নের হাতিয়ার, তাই অনুকরণের পরিবর্তে উদ্ভাবনে জোর দিতে হবে: রাষ্ট্রপতি চতুর্থ শিল্প বিপ্লবে বাংলাদেশ নেতৃত্ব দেবে: সজীব ওয়াজেদ সুইস রাষ্ট্রদূতকে বাংলাদেশে আরও বিনিয়োগ বাড়ানোর আহ্বান প্রধানমন্ত্রীর উর্গবাদী সংগঠন দেশে শান্তি বিনষ্টের চেষ্টা করছে: ওবায়দুল কাদের ৮০ হাজার কোটি টাকা খেলাপি শীর্ষ ২৫ ব্যাংকে: বাংলাদেশ ব্যাংক অর্থ পাচারকারীদের আইনের আওতায় আনতে হবে: হাইকোর্ট যুক্তরাষ্ট্র ইরাকে থেকে কূটনীতিকের সংখ্যা কমাল  দেশ চলছে শতভাগ ব্যক্তিতন্ত্রের ওপর: গয়েশ্বর চন্দ্র ‘টেক্সট ফর ইউ’ শিরোনামে হলিউড সিনেমায় প্রিয়াঙ্কা ১১ ডিসেম্বর মুক্তি পাচ্ছে ‘বিশ্বসুন্দরী’  প্রভাস তিন সিনেমায় নিচ্ছেন ৩০০ কোটি! রাজধানীতে ভিপি নূরের নেতৃত্বে মশাল মিছিল বার্সা উড়ছে মেসিকে ছাড়াই  প্রথম জয় বেক্সিমকো ঢাকার  নিরাময়ের বদলে মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ কেন্দ্রগুলোতে চলে নির্যাতন পৃথিবীর মধ্যে সর্বোচ্চ খরচ বাংলাদেশের প্রতি কি.মি. রাস্তা নির্মাণে সিলেট এমসি কলেজে গণধর্ষণ: ৮ জনের বিরুদ্ধে চার্জশিট বিনামূল্যের পাঠ্যবই আটকা যাচ্ছে তিন সংকটে শনিবার থেকে অ্যান্টিজেন টেস্ট শুরু হচ্ছে করোনা: বিশ্বে মৃতের সংখ্যা ছাড়িয়েছে ১৪ লাখ ৯৯ হাজার

সাইবার অপরাধ রোধে নিজস্ব প্রযুক্তি উদ্ভাবনে গুরুত্ব রাষ্ট্রপতির

সাইবার অপরাধ রোধে অন্যের মুখাপেক্ষী না হয়ে নিজস্ব প্রযুক্তি উদ্ভাবনের ওপর জোর দিয়েছেন রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ।

 

বৃহস্পতিবার বাংলাদেশ অ্যাসোসিয়েশন অব সফটওয়ার অ্যান্ড ইনফরমেশন সার্ভিসেস (বেসিস) আয়োজিত ‘বেসিস সফটএক্সপো ২০২০ এর উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে রাষ্ট্রপতি বলেন, “তথ্যপ্রযুক্তি খাতের উন্নয়নে নতুন নতুন সফটওয়্যারের উদ্ভাবন ও এর যথাযথ ব্যবহার নিশ্চিত করা খুবই জরুরি। তথ্যপ্রযুক্তির ব্যবহার যেমন মানুষের জীবনযাত্রাকে সহজ করেছে এবং ঘরে বসেই বিভিন্ন সেবা পাচ্ছে তেমনি এর অপব্যবহারও মানুষকে দুশ্চিন্তায় ফেলেছে।

 

হ্যাকিং ও ক্রেডিট কার্ড জালিয়াতিসহ বিভিন্ন  সাইবার ক্রাইম এ খাতের উন্নয়নকে বাধাগ্রস্ত করতে পারে। তাই অন্যের মুখাপেক্ষী না হয়ে নিজস্ব প্রযুক্তি উদ্ভাবনকে অগ্রাধিকার দিতে হবে। এছাড়া উদ্ভাবিত প্রযুক্তির উন্নয়ন, সংরক্ষণ এবং অপব্যবহার রোধেও যথাযথ পদক্ষেপ নিতে হবে।

 

রাষ্ট্রপতি বলেন, সাইবার ক্রাইম এখন বিশ্বব্যাপী আলোচিত ইস্যু। তাই আমাদের তথ্যপ্রযুক্তি খাতে উন্নয়নের ধারাকে অব্যাহত রাখতে সকলকে কার্যকর উদ্যোগ নিতে হবে।

 

স্থানীয় তথ্যপ্রযুক্তি প্রতিষ্ঠানকে অগ্রাধিকার দেওয়ার আহ্বান জানিয়ে আবদুল হামিদ বলেন, আমাদের সমস্যার সমাধান আমাদেরই করতে হবে। এজন্য স্থানীয় বা বিদ্যমান সমস্যা ও প্রয়োজনীয়তা মাথায় রেখেই আমাদের ভবিষ্যত নীতি ও পরিকল্পনা গ্রহণ করতে হবে।

 

আমাদের দেশের মেধাবী তরুণদের কর্মসংস্থানসহ সরকারি ছোটো-বড় প্রকল্প বাস্তবায়নে যাতে স্থানীয় তথ্যপ্রযুক্তি প্রতিষ্ঠানগুলো অগ্রাধিকার পায় সে ব্যাপারেও তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগসহ সংশ্লিষ্ট সরকারি প্রতিষ্ঠানগুলোকে এগিয়ে আসতে হবে।

 

রাষ্ট্রপতি বলেন, আমাদের স্থানীয় সফটওয়্যার কোম্পানিগুলোকে আত্মনির্ভরশীল করতে দাতা সংস্থাগুলোর সহায়তায় যেসব প্রকল্প বাস্তবায়িত হচ্ছে অথবা আগামীতে সেসব প্রকল্পে স্থানীয় কোম্পানিগুলোকে কাজ করার সুযোগ করে দিতে হবে। সেইসাথে সরকারের উদ্যোগের সাথে বেসরকারি খাতে সম্পৃক্ততা ও অংশীদারিত্ব বাড়াতে পাবলিক-প্রাইভেট পার্টনারশিপ (পিপিপি) জোরদার করতে হবে।

 

তবে সফটওয়ার ও ডিজিটাল ডিভাইসের ক্ষেত্রে ‘মেইড ইন বাংলাদেশ পণ্য ও সফটওয়্যারের প্রচারের জন্যও কার্যকর পদক্ষেপ নিতে হবে। এজন্য নতুন নতুন উদ্ভাবনসহ তথ্যপ্রযুক্তি খাতে দেশি-বিদেশি বিনিয়োগ বাড়ানোও গুরুত্বপূর্ণ বলে আমি মনে করি।

 

রাজধানীর আন্তর্জাতিক কনভেনশন সিটি বসুন্ধরায় (আইসিসিবি) ওই অনুষ্ঠানে অন্যদের মধ্যে বক্তব্য দেন শিল্পমন্ত্রী নূরুল মজিদ মাহমুদ হুমায়ূন, তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগের সচিব এন এম জিয়াউল আলম, বেসিস সভাপতি সৈয়দ আলমাস কবীর প্রমুখ।

 

 

মুক্তকন্ঠ২৪

নিয়মিত সকল সংবাদ পেতে মুক্তকন্ঠ২৪.কম এর ফেইসবুকে যুক্ত থাকুন।

শেয়ার করুন


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *