মঙ্গলবার, ০৪ অক্টোবর ২০২২, ১২:৪১ পূর্বাহ্ন

করোনা মোকাবেলায় দক্ষিণ এশিয়ায় শীর্ষে বাংলাদেশ

করোনাভাইরাস সামলে ওঠার ক্ষেত্রে বিশ্বের যে দেশগুলো সবচেয়ে ভালো করছে, সেই তালিকায় পঞ্চম স্থানে আছে বাংলাদেশ। আর দক্ষিণ এশিয়ার দেশগুলোর মধ্যে বাংলাদেশের অবস্থান সবার ওপরে।

বৃহস্পতিবার জাপানভিত্তিক প্রতিষ্ঠান নিকেই এশিয়া প্রকাশিত ‘নিকেই কোভিড-নাইন্টিন রিকোভারি সূচক’-এ এই চিত্র উঠে এসেছে। সূচকে বিশ্বের ১২১টি দেশের মধ্যে শীর্ষ স্থানে রয়েছে কাতার। এরপরে সংযুক্ত আরব আমিরাত, কম্বোডিয়া ও রুয়ান্ডা। তারপরেই বাংলাদেশের অবস্থান। এক্ষেত্রে দক্ষিণ এশিয়ার মধ্যে নেপালের অবস্থান ষষ্ঠ ও ভারতের অবস্থান ৭০তম। করোনা সংক্রমণ ছড়িয়ে পড়া ঠেকাতে বিভিন্ন দেশ ও অঞ্চলের ব্যবস্থাপনা, টিকাদান এবং এই মহামারি মোকাবিলায় সামাজিক তৎপরতার ওপর ভিত্তি করে এই সূচক প্রকাশ করা হয়।

করোনা সংক্রমণ ছড়িয়ে পড়া ঠেকাতে বিভিন্ন দেশ ও অঞ্চলের ব্যবস্থাপনা, টিকাদান এবং এই মহামারি মোকাবিলায় সামাজিক তৎপরতার ওপর ভিত্তি করে এই সূচক প্রকাশ করা হয়।

এসব বিষয় বিবেচনায় ৮০ পয়েন্ট নিয়ে সূচকে দক্ষিণ এশিয়ার দেশগুলোর মধ্যে সবচেয়ে ভাল অবস্থানে রয়েছে বাংলাদেশ। এই অঞ্চলের দেশগুলোর মধ্যে বাংলাদেশের পরে রয়েছে নেপাল।

মার্চে বাংলাদেশের অবস্থান ছিল ১৩তম। এদিকে, পাকিস্তান এই অঞ্চলে ২৩তম স্থানে এবং শ্রীলঙ্কা, বর্তমানে অর্থনৈতিক সংকটে ৩১তম স্থানে রয়েছে।

ভারত এবং হাইতি উভয়ই ৬২.৫ স্কোর করেছে, সূচকে ৭০ তম স্থানে রয়েছে, যেখানে কাতার এবং সংযুক্ত আরব আমিরাত ৮৭ পয়েন্ট নিয়ে শীর্ষস্থান দখল করেছে।

বাংলাদেশে গত কয়েক মাস ধরে কোভিড-১৯ সংক্রমণে নিম্নগামী প্রবণতা লক্ষ্য করা যাচ্ছে। শুক্রবার পর্যন্ত গত ১৬ দিনে, দেশে ভাইরাসে শূন্য মৃত্যুর রেকর্ড করা হয়েছে।

স্বাস্থ্য কর্তৃপক্ষের মতে, জনসংখ্যার প্রায় ৭৫.৪৬% অন্তত একটি টিকা গ্রহণ করেছে, যেখানে ৬৮.১৯% সম্পূর্ণরূপে টিকা দেওয়া হয়েছে।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published.