সোমবার, ০৩ অক্টোবর ২০২২, ১১:৪৩ অপরাহ্ন

প্রাকৃতিক উপায়ে মশা তাড়ান ৫ মিনিটেই

গ্রাম-শহর নির্বিশেষে মশার জ্বালায় অতিষ্ঠ মানুষের জীবন। বিকেল হতে না হতেই ঘরে ঢুকে পড়ছে মশা। তার উপর আবার আছে ডেঙ্গু, ম্যালেরিয়া এবং আরো নানা অসুখের ভয়। মশার হাত থেকে রক্ষা পেতে অনেকেই বিভিন্ন স্প্রে কিংবা কেমিক্যাল ব্যবহার করছেন। আর কয়েলের ব্যবহার তো আছেই।

তবে বিশেষজ্ঞরা জানিয়েছেন এই ধরনের কেমিক্যাল সমৃদ্ধ মশা তাড়ানোর বিষ আসলে উল্টে মানুষেরই ক্ষতি করছে। তাহলে উপায়? উপায় লুকিয়ে আছে প্রাকৃতিক উপাদানে। জেনে নিন কোন কোন প্রাকৃতিক উপায়ে ব্যবহার করে মশা দূর করতে পারবেন ঘর থেকে।

কর্পূর : বিভিন্ন গুণে ভরপুর কর্পূর নানান কাজে ব্যবহার হয়। কর্পূর মশা তাড়াতে সহায়ক হিসেবে কাজ করে। কর্পূরের চড়া গন্ধে মশা ঘরে ঢোকে না। এর জন্য প্রথমে ঘরের সমস্ত দরজা-জানলা বন্ধ করে দিয়ে ঘরের মধ্যে এক টুকরো কর্পূর জ্বালিয়ে নিতে হবে। তাহলেই কিছুক্ষণের মধ্যে একটা মশাও আর ঘরে থাকবে না।

রসুন : কর্পূরের মতো রসুনের গন্ধও মশা সহ্য করতে পারে না। রসুনের ব্যবহারে মশা দূর করতে চাইলে প্রথমে কয়েক কোয়া রসুন পানিতে মধ্যে ভালো করে ফুটিয়ে সেই পানি একটি বোতলে ভরে ঘরের নানা জায়গায় স্প্রে করে ফেলতে হবে।

ল্যাভেন্ডার অয়েল : ল্যাভেন্ডার তেল মানুষ যতটা পছন্দ করেন, মশারা ঠিক ততটাই অপছন্দ করে। ল্যাভেন্ডারের গন্ধ মশা সহ্য করতে পারে না। একটি স্প্রে বোতলে ল্যাভেন্ডার তেল ভরে ঘরে স্প্রে করে ফেলতে হবে। এতে মশা নিমেষে দূর হবে

পুদিনা পাতা : ঘরের মশা দূর করতে পুদিনা পাতাও অত্যন্ত উপকারী। এর জন্য বাড়িতে পুদিনা পাতার গাছ লাগাতে পারেন। পুদিনা পাতার গাছ যে বাড়িতে থাকে সেখানে মশা থাকে না। এছাড়াও পুদিনা পাতার তেলও ঘরের নানা জায়গায় স্প্রে করলেও উপকার পাবেন।

লেবু : লেবু খণ্ড করে কেটে ভেতরের অংশে অনেকগুলো লবঙ্গ গেঁথে দিন। লেবুর মধ্যে লবঙ্গের পুরোটা ঢোকাবেন, শুধু লবঙ্গের মাথার দিকের অংশ বাইরে থাকবে। এরপর লেবুর টুকরাগুলো একটি প্লেটে করে ঘরের কোনায় রেখে দিন। ব্যস, এতে বেশ কয়েক দিন মশার উপদ্রব কমবে। আপনি চাইলে লেবুতে লবঙ্গ গেঁথে জানালার গ্রিলেও রাখতে পারেন। এতে করে মশা ঘরে ঢুকবে না।

নিম পাতা : কয়লা বা কাঠ-কয়লার আগুনে নিমপাতা পোড়ালে যে ধোঁয়া হবে তা মশা তাড়ানোর জন্য খুবই কার্যকর।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published.