বৃহস্পতিবার, ০১ ডিসেম্বর ২০২২, ১২:০৭ অপরাহ্ন

মাদক সম্রাটদের নিয়ে নিউজ করায় সাংবাদিক খুন

ভারতের বিহার রাজ্যে মাদক সম্রাটদের নিয়ে প্রতিবেদন করার দায়ে নৃশংসভাবে খুন হলেন এক সাংবাদিক। গেল শুক্রবার (২০ মে) রাতে বিহারের বেগুসরাই এলাকায় বন্ধুর বিয়ের অনুষ্ঠান থেকে ফেরার পথে গুপ্তঘাতকদের গুলিতে নিহত হন তিনি।

ভারতের জনপ্রিয় দৈনিক পত্রিকা সিয়াসত ডেইলি রোববার (২২ মে) এ খবর প্রকাশ করে।

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, নিহত সাংবাদিকের নাম সুভাষ কুমার মাহতো। তাকে বাখরি থানা এলাকার সাখো গ্রামে নিজ বাড়ির কাছেই আত্মীয়দের সামনে গুলি করে হত্যা করে মাফিয়াদের পাঠানো ঘাতকরা।

হামলাকারীরা কাছ থেকে মাহতোর মাথায় গুলি করে ঘটনাস্থল থেকে পালিয়ে যায়। ঘটনার পর মাহতোকে স্থানীয় স্বাস্থ্যকেন্দ্রে নিয়ে যাওয়া হলে চিকিৎসকরা তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

মাহতোর বন্ধু ও সাংবাদিক অমিত পোদ্দার স্থানীয় গণমাধ্যম দ্য ওয়ারকে জানান, ‘রাতের ডিনার শেষে বাবাসহ পরিবারের অন্যান্যদের নিয়ে বাড়ি ফিরছিলেন মাহতো। হাঁটতে হাঁটতে তার আত্মীয়রা একটু দূরে সরে যেতেই ঘাতকরা তার ওপর গুলি চালিয়ে পালায়।

নিহত এই সাংবাদিক স্থানীয় কয়েকটি সংবাদপত্র ও সিটি নিউজ নামে একটি টিভি নিউজ চ্যানেলের সঙ্গে যুক্ত ছিলেন। সম্প্রতি মাদক সম্রাট বা মাফিয়াদের নিয়ে একটি প্রতিবেদন তৈরি করছিলেন এই সাংবাদিক। তারাই লোক পাঠিয়ে তাকে হত্যা করতে পারে বলে সন্দেহ করেন মাহতোর কয়েকজন সাংবাদিক বন্ধু। পঞ্চায়েতের একজন ওয়ার্ড সদস্যের প্রতি মাহতোর সোচ্চার সমর্থনের কথাও উল্লেখ করেছেন তার বন্ধুরা।

এর আগে ২০১৮ সালে এক মাতালকে পুলিশ ছেড়ে দিলে সেটি নিয়ে একটি ভিডিও প্রতিবেদন করেছিলেন মাহতো। যদিও সেটি ভুয়া বলে দাবি করে প্রতিবেদনটির জন্য বেগুসরাই জেলা সাংবাদিক সমিতির সাধারণ সম্পাদক সুভাষ কুমারের বিরুদ্ধে তথ্যপ্রযুক্তি আইনে মামলা করে পুলিশ। পরে স্থানীয় আদালত কুমারকে জামিন দেন।

বাখরি থানার এসএইচও (স্টেশন হাউস অফিসার) এক বিবৃতিতে বলেছেন, সাংবাদিক মাহতোর মৃত্যু ওইদিন রাতের বিবাহ অনুষ্ঠানের সময় একটি বিতর্কের সঙ্গে সম্পর্কিত।

তিনি জানান, অনুষ্ঠানস্থলে নাচতে থাকা একদল নারীর সঙ্গে কয়েকজন অজ্ঞাত ব্যক্তি এসে অসভ্য আচরণ করতে থাকে। মাহতো ওই পুরুষদের নিবৃত্ত করার চেষ্টা করলে বাক-বিতণ্ডা শুরু হয়। সেই ঝগড়ার জেরে হত্যার ঘটনা ঘটে থাকতে পারে।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *