শুক্রবার, ৩০ সেপ্টেম্বর ২০২২, ০৯:২৫ অপরাহ্ন

এখনও রিয়ালে খেলার স্বপ্ন দেখেন ‘বিশ্বাসঘাতক’ এমবাপ্পে!

টাকা নয় ইতিহাস গড়তেই পিএসজিতে থেকে গেছেন কিলিয়ান এমবাপ্পে। আরও একবার রিয়াল মাদ্রিদকে না করলেও লস ব্লাঙ্কোসদের হয়ে খেলার স্বপ্ন এখনও শেষ হয়ে যায়নি বলেও মনে করেন তিনি। আর তার ক্লাব প্রেসিডেন্ট নাসের আল খেলাইফির মতে এখন লা লিগা থেকেও এগিয়ে লিগা ওয়ান।

তাকে বারণে প্রস্তুত ছিলো মাদ্রিদ প্রস্তুত ছিলো লাখো লস ব্লাঙ্কো সমর্থক। শুধু প্রস্তুত ছিলেন না তিনি নিজেই। তাইতো শেষ মুহূর্তে মত বদলে থেকে গেছেন ঘরের ক্লাব পিএসজিতেই।

তাহলে কি শুধু টাকার কাছেই স্বপ্ন বেছে দিয়েছেন ফরাসি তারকা? পুরনো ক্লাবের সঙ্গে নতুন চুক্তির পর এই প্রশ্ন ঘুরে ফিরে আসছে বারবার। সোমবার আনুষ্ঠানিক সংবাদ সম্মেলনে তাকে ঘিরে সব প্রশ্নের উত্তর দিয়েছেন কিলিয়ান।

কিলিয়ান এমবাপ্পে বলেন, শেষ সপ্তাহে আমি এখানে থেকে যাওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছি। দেশ ছেড়ে যাওয়া আমার কাছে সঠিক মনে হয়নি। ক্লাবের পরিবর্তিত প্রজেক্টে সিদ্ধান্ত নিতে আমাকে সাহায্য করেছে। এখানে লেখার এখনও অনেক অধ্যায় বাকি রয়ে গেছে। চ্যাম্পিয়ন্স লিগসহ অনেক অনেক শিরোপা জিততে চাই।

রিয়াল সমর্থকদের মন ভেঙ্গে ফ্রান্সে থেকে গেলেও এমবাপ্পের দাবি এখনও মাদ্রিদের জন্য সম্মান রয়ে গেছে সেই আগের মতোই। এখনও রয়ে গেছে লস ব্লাঙ্কোদের জার্সি গায়ে চাপানোর শৈশবের স্বপ্নও।

কিলিয়ান এমবাপ্পে বলেন, সবার আগে আমি ফ্লোরেন্তিনো পেরেজের সঙ্গে কথা বলেছি। রিয়াল মাদ্রিদ ও তাকে আমি সম্মান করি। আমি শুধু বর্তমান নিয়ে কথা বলতে পারি। ভবিষ্যত নিয়ে ভাবা ছেড়ে দিয়েছি। রিয়ালের হয়ে খেলার ইচ্ছা এখনও শেষ হয়ে যায়নি।

মুখ খুলেছেন এমবাপ্পের সঙ্গে সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত থাকা পিএসজি প্রেসিডেন্ডট নাসের আল খেলাইফিও। তার দাবি এখন লা লিগা থেকে ভালো লিগা ওয়ান।

পিএসজি সভাপতি নাসের আল খেলাইফি বলেন, তিন বছর আগেও লা লিগা যেমনটা ছিলো এখন ততটা ভালো নয়। সব ক্লাবকে আমরা যেমন সম্মান করি তেমনি আমাদেরও সম্মান প্রাপ্য। লোকে কি বলে তাতে কিছু যায় আসে না। আমাদের এখানে বিশ্বের সেরা ফুটবলার আছে এটাই বাস্তবতা।

রিয়াল মাদ্রিদকে নিয়ে যতই সুর নরম করুন এমবাপ্পেকে বিশ্বাসঘাতক হিসেবেই দেখছেন লস ব্লাঙ্কোস সমর্থকরা। তার জন্য চিরতরে রিয়ালের দরজা বন্ধ করার দাবি তুলছেন অনেকে।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published.