শুক্রবার, ৩০ সেপ্টেম্বর ২০২২, ১০:৫৮ অপরাহ্ন

নয় সেঞ্চুরির পাঁচটিকেই দেড়শতে রূপ দিলেন মুশফিক

শ্রীলঙ্কার অফ স্পিনার রমেশ মেন্ডিসের বল ফাইন লেগে ঠেলে দিলেন মুশফিকুর রহীম। দ্রুত দৌড়ে নিলেন ডাবল। তাতেই মাইলফলক পূরণ হয়ে গেল এই অভিজ্ঞ ব্যাটারের। টেস্ট ক্যারিয়ারের নবম সেঞ্চুরিতে এটি মুশফিকের পঞ্চম দেড়শ ছাড়ানো ইনিংস। দ্রুত ২ উইকেট পড়ার পর তার পাল্টা আক্রমণে বাড়ছে বাংলাদেশের সংগ্রহ।

মঙ্গলবার (২৪ মে) মিরপুর টেস্টের দ্বিতীয় দিনের প্রথম সেশনে দেড়শতে পৌঁছান মুশফিক। সকালে লিটন দাস ও মোসাদ্দেক হোসেন সৈকতের বিদায়ের পর তিনিই বাংলাদেশের কাণ্ডারি হয়ে আছেন। তুলনামূলক দ্রুতগতিতে রান তুলছেন তিনি। প্রথম ইনিংসে চারশ ছোঁয়া সংগ্রহ পেতে তার দিকে তাকিয়ে স্বাগতিকরা। তবে সঙ্গীর অভাবে তা পূরণ হওয়া নিয়ে শঙ্কা থাকছেই।

মধ্যাহ্ন বিরতি পর্যন্ত বাংলাদেশের সংগ্রহ ৯ উইকেটে ৩৬১ রান। মুশফিকের সঙ্গে ৪৯ রানের অষ্টম উইকেট জুটি গড়ার পর বিদায় নেন তাইজুল ইসলাম। পেসার আসিথা ফার্নান্দোর বাউন্সারে পরাস্ত হয়ে উইকেটরক্ষক নিরোশান ডিকভেলার হাতে ক্যাচ দেন তিনি। তাইজুল করেন ৩৭ বলে ১৫ রান। নিজের পরের ওভারে আসিথা একই রকমের ডেলিভারিতে কুপোকাত করেন সৈয়দ খালেদ আহমেদকেও। ২ বল খেলে ডাক মারেন তিনি। যা বাংলাদেশের ইনিংসের পঞ্চম শূন্য।

ডাবল সেঞ্চুরির হাতছানি নিয়ে মুশফিক ক্রিজে আছেন ৩৩৯ বলে ১৭১ রানে। চোখ জুড়ানো ব্যাটিংয়ে ২১ চার মেরেছেন তিনি। তার সঙ্গী ইবাদত হোসেন ১৬ বল খেলে এখনও রানের খাতা খুলতে পারেননি। মুখোমুখি হওয়া দ্বিতীয় বলে আম্পায়ার আউট দিলেও রিভিউ নিয়ে বেঁচে যান তিনি।

টেস্ট বাংলাদেশের পক্ষে সর্বোচ্চ ব্যক্তিগত ইনিংসের মালিক মুশফিকই। ২০১৮ সালে এই মাঠেই জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে অপরাজিত ২১৯ রান করেছিলেন তিনি। তার আরও দুটি ডাবল সেঞ্চুরি রয়েছে। একটিতে প্রতিপক্ষ ছিল জিম্বাবুয়ে, আরেকটি শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে। এছাড়া, নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে ১৫৯ রানের একটি ইনিংসও আছে তার।

আগের দিন মুশফিক হাফসেঞ্চুরিতে পৌঁছেছিলেন ১১২ বলে, সেঞ্চুরি ছুঁয়েছিলেন ২১৮ বলে। এদিন মুখোমুখি হওয়া ২৯১তম বলে দেড়শ স্পর্শ করেন তিনি। ইনিংসের শুরুতে ২৪ রানে ৫ উইকেট হারিয়ে ধুঁকতে থাকা বাংলাদেশকে পথে ফেরাতে লিটনকে নিয়ে বিশাল এক জুটি গড়েন তিনি।

শুরুর মহাবিপর্যয়ের পর প্রতিরোধ গড়ে মুশফিক ও লিটনের অসাধারণ জুটি থামে ২৭২ রানে। টেস্টে বাংলাদেশের পক্ষে এটি যে কোনো উইকেটে তৃতীয় সর্বোচ্চ রানের জুটি, শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে সর্বোচ্চ। ৩৫৯ রানের জুটি নিয়ে তালিকার সবার উপরে থাকা জুটিতেও রয়েছে মুশফিকের নাম। ২০১৭ সালে ওয়েলিংটনে নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে ওই জুটিতে তার সঙ্গী ছিলেন সাকিব আল হাসান।

পেসার কাসুন রাজিথার বলে ১৪১ রান করে ফেরেন লিটন। ২৪৬ বলের ইনিংসে তিনি মারেন ১৬ চার ও ১ ছক্কা। বিদায়ের আগে মাহমুদউল্লাহর রেকর্ড নিজের করে নেন তিনি। টেস্টে সাত নম্বরে নেমে বাংলাদেশের হয়ে সর্বোচ্চ ব্যক্তিগত ইনিংস এখন তার। তার বিদায়ের তিন বল পরই শূন্য রানে সাজঘরে ফেরেন ৩২ মাস পর টেস্ট খেলতে নামা মোসাদ্দেক। তাকে ঝুলিতে পুরে টেস্ট ক্যারিয়ারে প্রথমবার ৫ উইকেটের স্বাদ নিয়েছেন রাজিথা। আসিথার নামের পাশে রয়েছে ৪ উইকেট।

আগের দিনের ৫ উইকেটে ২৭৭ রান নিয়ে খেলতে নেমেছিল বাংলাদেশ। প্রথম সেশনে খেলা হয়েছে ২৮ ওভার। ৪ উইকেট হারিয়ে টাইগাররা তুলেছে ৮৪ রান।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published.